৫০ পেরিয়েও যেভাবে আপনার আয় বাড়াবেন

 

বয়স ৫০ পেরোলেই অনেকেই ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তায় পড়ে যাই। দীর্ঘদিন Corporate চাকরি করার পর কী করবেন, কি করে খাবো শেষ বয়সে  ভেবে পান না। এ সময় বসে বসে সময়ও কাটবে না । নতুন করে অফিসের বা করপোরেট প্রতিষ্ঠানের কাজে কাজে যোগ দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। অনেকেই এ সময় ফ্রিল্যান্সিংয়ের মতো কাজে যুক্ত হন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, নিজের জন্য নতুন উদ্যোগ নেওয়া আর  Carrier পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে নিজেকে উজ্জীবিত রাখা জরুরি।

Freelancer Union ও Online freelance Platform Up-work প্রকাশিত ‘ফ্রিল্যান্সিং ইন আমেরিকা: ২০১৯’ শীর্ষক প্রতিবেদনে তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের এক-তৃতীয়াংশ কর্মী বয়স ৫০ পার হলে Full time বা part time ফ্রিল্যান্সিংয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। এ বয়সের অধিকাংশ job less লোক গুলো স্বেচ্ছায় এ পেশা বেছে নিচ্ছেন।

আরও পড়ুনঃ বৃষ্টিতে মোবাইল ভিজে গেলে কি করবেন বা করণীয় কি?

৫০ পেরিয়েও যেভাবে আপনার আয় বাড়াবেন

৫০ উরধে ব্যক্তিদের যাঁরা ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফলতা পেতে চান, তাঁদের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু পরামর্শ ।

পরামর্শ এক:

বর্তমান দক্ষতাকে কাজে লাগান: সমীক্ষা অনুযায়ী, সব বয়সী Freelancer তাঁদের দক্ষতা আর পারদর্শিতা অনুযায়ী কাজগুলো করেন। এর মধ্যে রয়েছে Adviser BPO, Programing প্রভৃতি। Freelancing মার্কেটপ্লেসে সাধারণত অদক্ষদের চেয়ে দক্ষরা কাজ পান বেশি এবং তাঁদের Income অনেক বেশি। যেসব Expert Freelancer  অনলাইনে কাজ করছেন, তাঁরা ঘণ্টাপ্রতি গড়ে ২৮ ডলারের বেশি আয় করছেন। অদক্ষ কর্মীদের ক্ষেত্রে গড় আয় ২০ ডলারের নিচে। যাঁদের বয়স ৫০ পেরিয়ে গেছে, তাঁরা ফ্রিল্যান্সিংয়ে তাঁদের কাজের অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে Income করতে পারবেন। যাঁরা Expert Freelancer, তাঁরা আপওয়ার্কে সবচেয়ে বেশি আয় করেন। যেমন অ্যাকাউন্টিং বা ফিন্যান্সের মতো বিষয়গুলোতে আয় বেশি। যাঁরা Corporate পুনর্বিন্যাস, Bitcoin ও আন্তর্জাতিক অ্যাকাউন্টিং বোঝেন, তাঁদের আয় Hourly 200 ডলারের বেশি।

আরও পড়ুনঃ করোনা সংক্রমণ এড়াতে কোথায় কত ভিড়, জানিয়ে দেবে Google Maps-এর নতুন ফিচার!

পরামর্শ  দুই:

নেটওয়ার্কিং: ফ্রিল্যান্সিংয়ের দুনিয়ায় সবচেয়ে বেশি কাজে লাগে  Networking । আপনাকে যত মানুষ জানবে এবং আপনার দক্ষতার সম্পর্কে তাঁদের ধারণা থাকবে, ততই কাজ পেতে সুবিধা হবে। Freelancing in America এক  প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্যক্তিগত যোগাযোগের বিষয়টি Freelancing অ্যাসাইনমেন্ট পাওয়ার সবচেয়ে ভালো উৎস। ব্যক্তিগত নেটওয়ার্কের মধ্যে রয়েছে আগের ফ্রিল্যান্স গ্রাহক, বন্ধু ও পরিবার, পেশাদার যোগাযোগ, পরিচিত প্রতিষ্ঠান প্রভৃতি। এ ক্ষেত্রে পঞ্চাশোর্ধ্ব তরুণদের তুলনায় সুবিধা পেতে পারেন। কারণ তাঁদের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা ও যোগাযোগ কাজে লাগে। আপওয়ার্কের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা Stephen Casriel বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ ও আলোচনার মাধ্যমে যে বড় নেটওয়ার্ক তৈরি হয়, তা পরে আয়ের উৎস হতে পারে। এ ক্ষেত্রে LinkedInদারুণ কার্যকর। এ ছাড়া ফ্রিল্যান্সিং সাইট যেমন Upwork, Fiverr, People per Hour, Freelancer , Guru ডটকমের মতো সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলে কাজ খোঁজা যেতে পারে।

পরামর্শ  তিন :

প্রশিক্ষণে বিনিয়োগ: বয়স হয়ে গেলেও যাঁদের দক্ষতা রয়েছে, তাঁরা আরও দক্ষতা বাড়াতে বিনিয়োগ করতে পারেন। শিখে ফেলতে পারেন এখনকার যুগোপযোগী Digital marketing  ও Social median ব্যবস্থাপনার নানা কৌশল। বয়সকে বাধা না মেনে গ্রাহককে বোঝাতে হবে প্রতিযোগিতামূলক কাজে এগিয়ে আছেন আপনি। যদি নিজের দক্ষতা বাড়াতে না পারেন, তবে বেশি আয় করা Freelancer হওয়ার স্বপ্ন সত্যি হবে না। Freelancing in America এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭৩ % ফ্রিল্যান্সার দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয়তার পক্ষে ভোট দিয়েছেন। এ ছাড়া ৭১%  ফ্রিল্যান্সার বাজারে টিকে থাকতে তাঁদের দক্ষতা বাড়িয়েছেন। এমনকি গত ৬ মাসে ৬৫ %  ফ্রিল্যান্সার দক্ষতা বাড়ানোর Training নিয়েছেন। Soft স্কিলকেও অগ্রাহ্য করা যাবে না। কারও সঙ্গে যোগাযোগ, Teamwork বা দর-কষাকষির মতো বিষয়গুলো শিখতে হবে।

আরও পড়ুনঃ আজব প্রস্তাব বন্ধুর সাথে সেক্স করলেই মিলবে ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার

পরামর্শ চার :

ধীরে চলুন: Freelancing দুনিয়ায় ঢুকেই কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থ আয় করে ফেলবেন, এমন ধারণা ভুল। আপওয়ার্কের প্রধান নির্বাহী Stephen Casriel পরামর্শ হচ্ছে, ধীরে ও ধাপে ধাপে ফ্রিল্যান্সিংয়ের জগতে আসুন। আপনাকে অনেক কিছু শিখতে হবে। কাজ খোঁজা ছাড়াও কীভাবে কাজের জন্য টাকা গ্রহন করবেন, তা শিখতে হবে। কাজের ভালু বুঝে দামদর ঠিক করা জানতে হবে। সব সময় হাতে কাজ থাকবে না। তাই অন্য সময় কীভাবে চলবেন, সে বিষয়গুলো ভেবে আগাতে হবে। শুরুতে এক বা দুইটি প্রকল্পে ফ্রীলাঞ্চিং শুরু করতে পারেন।

বোনাস পোস্ট :

>> পড়াশোনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং – আউটসোর্সিং এর কাজ করে বাড়তি উপার্জন করুন

আশা করি এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে । আপনি কি? এই তথ্যগুলো আগে থেকেই জানতেন? কমেন্ট এর মাধ্যমে জানাবেন। লেখাটি ভাল লেগে থাকলে বন্দুদের মাঝে শেয়ার করুন ।আপনি কোন, বিষয়ে জানতে চান অথবা ভাল পরামর্শ দানে কমেন্ট করুন ।ধন্যবাদ!

আমাদের যোগাযোগের মাধ্যমঃ
Facebook Page                                                       YouTube Channel

Share Now!

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

error: This Content is CopyWrite Protected !! BY DMCA