একজন তরমুজ বিক্রেতার গল্প – ইতিবাচক ও ব্যতিক্রমীও চিন্তা ভাবনা

 

তরমুজ বিক্রেতার গল্প

 

একজন তরমুজ বিক্রেতার গল্প – ইতিবাচক ও ব্যতিক্রমীও চিন্তা ভাবনা

একজন মধ্য বয়সী ভদ্রলোক তরমুজ বিক্রি করছেন। যথা রীতি সে তরমুজের মূল্যতালিকা ঝুলিয়ে দিয়েছেন এমন যে : একটা কিনলে ৩ ডলার, তিনটা কিনলে ১০ ডলার । তো একজন তরুণ যুবক দোকানে এসে, তরমুজয়ালাকে জিজ্ঞাসা করলেন একটা তরমুজের দাম কত ।

আরও পড়ুনঃ সফলতার জন্য প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি

তরমুজয়ালা জানালেন  ৩ ডলার । তরুণটি খুব বুদ্ধিমান, মূল্যতালিকায় দেখলেন একটা কিনলে ৩ ডলার, আর তিনটা কিনলে ১০ ডলার । যুবকটি একটা তো কিনলেনই, পর পর আরো দুইটা তরমুজ কিনে ফেললেন। যথরীতি প্রতিটার দাম ৩ ডলার হিসেবে ৯ ডলার পরিশোধ করলেন। চলে যাওয়ার ঠিক আগমুহূর্তে সেই তরুণ কী ভেবে যেন থামলেন, মধ্য বয়সী তরমুজ বিক্রেতাকে উদ্দেশ্য করে যুবকটি বললেন। আপনি কি খেয়াল করেছেন, আমি তিনটা তরমুজ ১০ ডলার এর পরিবর্তে মাত্র ৯ ডলার দিয়ে কিনলাম ! আমার ধারণা, আপনার দ্বারা এসব ব্যবসা ট্যাপসা হবে না।

তরমুজ বিক্রেতা এবার মুচকি হেঁসে বললেন, মানুষ বড়ই আজব এক জাতি! তারা একটা তরমুজ কিনতে এসে,  তিনটা তরমুজ কিনে নিয়ে যায় এবং যাওয়ার আগে আমাকে শেখানোর চেষ্টা করেন, কিভাবে ব্যবসা করতে হয়।

আরও পড়ুনঃ কোন কাজে সফলতা পেতে হলে থাকতে হবে ৭ টি গুণ

শিক্ষণীয় বিষয় হল, শুধু টাকা থাকলেই ভাল ব্যবসাহি হওয়া যায়না, এর জন্য প্রয়োজন সঠিক সময়ে সঠিক বুদ্ধির প্রয়োগ ।

 

Share Now!

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.